বাংলা আবাস যোজনা লিস্ট

  আপনি কি জানেন পশ্চিমবঙ্গে বাংলা আবাস যোজনা লিস্ট কেন এখন প্রকাশিত হয়নি? আপনার কি জানেন bangla awash yojna list 2021  আপনার নাম আছে কিনা কি করে জানবেন।



 পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন যেসব ব্যক্তি ঘরে নেই এবং অত্যন্ত গরীব সেই সব মানুষদের বাংলা আবাস যোজনা ঘর দেওয়া হবে। অপনাদের কথা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা যেসব গরিব মানুষের নাম এসেছিল, কিছুদিনের মধ্যে কমপ্লিট হয়ে যাবে পরে বাংলা আবাস যোজনা শুরু করা হবে।

 বাংলা আবাস যোজনা মানুষদের 2 লক্ষ 40 হাজার টাকা করে পাকা ঘর বানানোর জন্য দেওয়া হবে সোজা ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে। ইতিমধ্যে তার নাম গুলি প্রকাশিত হয়েছে। বাংলা আবাস যোজনার লিস্ট এখনো পর্যন্ত যেসব মানুষরা পাবে তাদের কাছে পৌঁছয় নি।

 বর্তমান কিছুদিনের মধ্যে বিধানসভা নির্বাচন শুরু হবে তাই এই লিস্টে যাদের নাম আছে এখনো পর্যন্ত জানানো হয়নি। মাননীয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বলেছে যদি এই সরকার পুনরায় গঠন হয় তাহলে এই প্রকল্পটি দ্রুত কাজ শুরু হবে। আবার বিরোধী পার্টির নেতারা বলছেন এটা নাকি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা লিস্ট কিন্তু বর্তমান সরকার এই যোজনার নাম বদলে বাংলা আবাস যোজনা নাম রেখেছে।

বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী যেই সরকারের দিক মানুষের কাছে পৌঁছানো টা বড় কথা। পশ্চিমবঙ্গের অনেক মানুষ আছে যাদের ঠিকঠাক থাকার মত বাসস্থান নেই তাই খুব দ্রুত এই যোজনা নাম প্রকাশ করা উচিত।

 নামের লিস্ট কিভাবে দেখবেন?

 আপনার যদি বাংলা আবাস যোজনা নামের লিস্ট দেখতে চান বা আপনার নাম আছে কিনা কিভাবে দেখবেন? আপনাদের স্থানীয় অঞ্চল অফিস কিংবা বিডিও অফিস এ গিয়ে আপনার নাম আছে কিনা জানতে পারবেন। প্রত্যেকটি এলাকার bangla awash yojna list বা ঘরের লিস্ট অলরেডি প্রত্যেকটি গ্রামে পৌঁছে গিয়েছে কিন্তু বিধানসভা ভোটের কারণে এই লিস্ট প্রকাশ করছে না। যদি এই সরকার পুনরায় ক্ষমতায় আসে তাহলে দ্রুত কাজ হলে জানা গিয়েছে।

 বাংলা আবাস যোজনা কত টাকা পাবে?

 আপনারা জানেন প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা গরিব পরিবার ঘর তোলার জন্য 140000 টাকা পেয়েছে। বর্তমান বাংলা আবাস যোজনা থেকে 2,40,000 টাকা করে পাবে বলে জানা গেছে।

 কতবার ধরে টাকা পাবে?

 বাংলা আবাস যোজনা জন্য বর্তমান পশ্চিমবঙ্গ সরকার টোটাল তিন কিস্তিতে টাকা পাবে। প্রথম কিস্তি এক লাখ টাকা দেওয়া হবে। দ্বিতীয় কিস্তি যখন আপনি আপনার ঘরের মেঝে এবং ইট গাথা চালু হবে তখন  90 হাজার টাকা দেওয়া হবে। শেষ কিস্তির টাকা তাহলে আপনার ঘর কমপ্লিট হয়ে গেলে। এইভাবে 3 কিস্তি টাকা দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

 বাংলা আবাস যোজনা লিস্ট প্রকাশ কেন হয়নি?

 পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী রাজনৈতিক পার্টি কথা অনুযায়ী বাংলা আবাস যোজনা বলতে কিছু নেই। এই  যোজনা টি কেন্দ্র সরকারের প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা গ্রামীন এর অন্তর্গত। এই যোজনা টি নাম বদলে বাংলা আবাস যোজনা নামের পরিবর্তন করা হয়েছে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা নতুন নামের তালিকা প্রকাশ হয়নি তাই এই প্রকল্পটি নামের লিস্ট সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছায়নি। আরো দাবি করেন বর্তমান বিধানসভা ভোট ব্যাংকের জন্য মমতা ব্যানার্জি একটি নকল লিস্ট তৈরি করেছে ভোট ব্যাংকের কারণে।

আরো দাবি করেন যদি এই আবাস যোজনা শুরু করার ইচ্ছে ছিল তাহলে ভোটের আগে কেন নামটি প্রকাশ হয়নি বা এর কাজ আগে কেন শুরু করা হলো না? বিরোধী পক্ষের দাবি অনুযায়ী জানা যায়।

 বিশেষ বক্তব্য

 এই আর্টিকেলটি শুধুমাত্র রাজনৈতিক কিছু তথ্য অনুযায়ী লেখা হয়েছে। এই লেখার মাধ্যমে কোন দলকে বা কোনো রাজনৈতিক দল হিসাবে লেখা হয়নি। আমরা কোন পার্সোনাল রাজনৈতিক দলের হিসেবে কাজ করি না। সমাজে যা ঘটছে সেই কথা অনুযায়ী এই আর্টিকেলটি লিখা হয়েছে। যদি আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকে বা অসুবিধা থাকে তাহলে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। আমাদের যোগাযোগ করার জন্য কন্টাক্ট ফর্ম এ গিয়ে যোগাযোগ করতে পারেন।

 আবাস যোজনা লিস্ট 2021 মানুষের কমেন্ট

 এর আগে আমাদের bangalabhumi.in অনেকগুলো আবাস যোজনা সম্বন্ধে লেখা হয়েছে। আপনাদের রায় অনুযায়ী যদি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা নামের লিস্ট দেখতে চান বা আপনার নাম আছে কিনা জানতে চান তাহলে দয়া করে কমেন্টে গিয়ে কমেন্ট করার সময় আপনার নাম, গ্রাম, অঞ্চল, ব্লক, আপনার জেলাটি এবং ফোন নাম্বারটি লিখে পাঠাবেন। আমাদের সুবিধা অনুযায়ী যদি আপনার নাম থাকে বা আপনার এলাকার নামের তালিকা দিন আপনার ফোন নাম্বারের মাধ্যমে বা হোয়াটস অ্যাপের মাধ্যমে আপনার কাছে পাঠিয়ে দেবো।

 আশা করি আপনারা বাংলা আবাস যোজনা সম্বন্ধে সমস্ত তথ্য জানতে পারলেন বা বাংলা আবাস যোজনা নামের লিস্ট এখনো কেন প্রকাশ হয়নি তা সম্পূর্ণ তথ্য এই আর্টিকেলের মধ্যে জানতে পারলে। যদি আপনার কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে দয়া করে contact us  এগিয়ে আপনারা প্রশ্ন করতে পারেন। এবং আরো নতুন নতুন আপডেট পেতে আমার এই ছোট্ট ওয়েবসাইট থেকে নিচে গিয়ে সাবস্ক্রাইব করতে পারেন। সমস্ত আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।




Previous
Next Post »